বাড়ি স্বাস্থ সামান্যতম ভুলের জন্য গর্ভাবস্থায় সন্তানের মৃত্যু।

সামান্যতম ভুলের জন্য গর্ভাবস্থায় সন্তানের মৃত্যু।

265

প্রতিনিধি, মোঃ মুনসুর অালী:  যখন কোনো মহিলা গর্ভাবস্থায় থাকেন তখন ঐসব মহিলার হালকা হালকা বমি, মাথা ব্যাথা,মাথা ঘুরা,পেট ব্যাথা প্রভৃতি দেখা দেয়।আর এর থেকে বেশি কিছুর অসুবিধা হলে একজন অভিজ্ঞ এমবিবিএস প্রাপ্ত ডাক্তারের চিকিৎসার আবদ্ব হওয়া উচিত।কিন্তু আমরা ঐ কাজ না করে সামান্যতম পল্লী চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা নিই।যেটা আমাদের ভুল বিরাট কারণ হয়ে দাঁড়ায়। যেসকল মহিলা গর্ভাবস্থায় থাকেন তাদেরকে নানারকম উপদেশমুলক জ্ঞান দেয় আমাদের সমাজের সুশীল লোকেরা।”জেনে নেওয়া যাক গর্ভাবস্থায় একটি শিশুর মৃত্যুর কারণ:-১৮+ সপ্তাহের মৃত বেবি। ডায়গনোসিস ছিলো ‘জন্মগত ক্রুটি'(Multiple Feotal Anomalies) সে হিসেবে ‘Clinical Abortion’ করানো হয়েছে। কিন্তু করানোর পর বুঝলাম ,এটা ছিলো ‘ Missed Abortion’ (বেবি ৭-১০ দিন আগে পেটেই মারা গিয়েছিলো। পেট, মাথা ও পায়ে পচন ধরেছে। আরো কিছুদিন ভেতরে থাকলে মায়ের কঠিন ইনফেকশন হতো!) জন্মগত ক্রুটি ও পেটে মৃত্যুর সম্ভাব্য কারন —-জ্বর/ব্যাথার জন্য ফার্মেসী থেকে মেডিসিন নিয়ে খেয়েছিলেন কোনো ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়াই! — পল্লী চিকিৎসক ও ফার্মেসীর লোক উভয়ই এধরনের চিকিৎসা নিয়মিত করেন বিশেষত গ্রাম, শহরতলীতে।
— প্রেগ্ন্যান্ট মেয়েরা ‘গাইনী ডাক্তার এর ভিজিট বাঁচাতে’ নিয়মিত এদের সাজেশনে চলেন। আমাদের ভূল কোথায়??
– গাইনোকলোজি ও অবসট্রেটিক্স সাব্জেক্ট আলাদা করা হয়েছে অবশ্যই বিশেষ কারনে। প্রেগ্ন্যান্সি একটা মেয়ের জীবনে অনেক বড় বিষয়। অল্প কিছু জ্ঞানের ভূলে যে কান্নার ভাগীদার হচ্ছেন ,তার দায় কি আপনার’ই নয়? – একজন MBBS ডাক্তার যা জানবেন, “আপা/ভাবী/নার্স ফার্মেসীর লোক, পল্লী চিকিৎসক ” তা জানবেন না, এটাই স্বাভাবিক। — একজন গাইনী-প্রসূতি বিদ্যায় অভিজ্ঞ/বিশেষজ্ঞ যে জ্ঞান রাখেন তা শুধু MBBS ডাক্তার রাখেন না, এটাও স্বাভাবিক তাই না? আমরা তাহলে নিশ্চয়ই বুঝে ফেলেছি ,আমাদের সিদ্ধান্তের ভুল কোথায়! হয়ত সামান্য ভুলের কারণে মানুষের জীবন থেকে ছিটকে পড়ে একটি আগামির উজ্জ্বল নক্ষত্র। যার দুঃখের স্মৃতি ও কান্না জীবনকে পদে পদে বাধা সৃষ্টি করে। আমরা যারা শহরে সচেতন সমাজে থাকি..
আমাদের জন্যেও এটা এলারমিং সাইন! সঠিক জায়গায়, সঠিক পদ্ধতিতে ও সঠিক মানুষের চিকিৎসা না নিলে ভবিষ্যৎ কি হতে পারে, শিখে রাখুন! ভালো থাকুন নিজে। ভালো রাখুন আপনার অনাগত সন্তানকে।