ফ্রি ল্যান্সিংয়ে ১২০ ডলার আয় করায় মাহবুবাকে সিটি মেয়রের অভিবাদন।

ফ্রি ল্যান্সিংয়ে ১২০ ডলার আয় করায় মাহবুবাকে সিটি মেয়রের অভিবাদন।

33
SHARE

প্রতিনিধি, মোঃ হাসান মুরাদ: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের আওতায় দুইটি ব্যাচে ২০ জন করে মোট ৪০ জন নারী ফ্রি ল্যান্সিং উদ্যোক্তাকে মাস ব্যাপী প্রশিক্ষণ দিয়েছে। এদের একজন মাহবুবা আল মোবাশ্বেরা। প্রশিক্ষণ গ্রহণকালিন সময়েই তিনি ফ্রি ল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে গ্রাফিক্স ডিজাইনিংয়ে ১২০ ডলার আয় করে ফেলেছেন।  আজ দুপুরে চসিক কে বি আবদুচ ছাত্তার মিলনায়তনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের এক্সেস টু ইনফরমেশন প্রজেক্ট এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যৌথ আয়োজনে নারী আইসিটি ফ্রি ল্যান্সার ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন কর্মসূচীর আওতায় মাঠ পর্যায়ের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। নারী উদ্যোক্তা মাহবুবা মোবাশ্বেরা উচ্ছ¡সিত কণ্ঠে নিজের এই অর্জনের কথা অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রধান অতিথি সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের কাছে এভাবেই ব্যক্ত করেন।
মাহবুবার কথা শুনে সিটি মেয়র নিজেই তাকে আন্তরিক অভিবাদন জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার নারীর ক্ষমতায়নে একে একে নানামুখী উদ্যোগ বাস্তবায়ন করে চলেছে। প্রশিক্ষণ লব্ধ জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে মাহবুবার মত আপনারাও ফ্রি ল্যান্সিংয়ে টাকা রোজগার করবেন। নিজের জীবন জীবিকা উন্নয়নের পাশাপাশি দেশের অগ্রগতি-উন্নয়নে ভূমিকা রাখবেন-এটাই প্রত্যাশা করি। আপনারা মাহবুবারাই আগামীর বাংলাদেশ। ফ্রি ল্যান্সিংয়ের মাধ্যমে বৈদেশিক অর্থ আয়ের এই যাত্রায় আপনারাও যুগপৎ অংশীদার। দেশ এগিয়ে নেয়ার এই চ্যালেঞ্জে আমাদের নারীরাও আজ সহায়ক শক্তি। এই অর্জন ডিজিটাল বাংলাদেশের। এই সফলতা আমাদের সকলের।
অনুষ্ঠানে মাহবুবার সাথে কথা বলা হলে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ৮ নং ওয়ার্ড কার্যালয়ে আমি মাস ব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মসূচীতে ট্রেনিং নেয়ার কিছু দিন পর থেকে কাজ শুরু করি। ইন্টারনেটে আমি বিভিন্ন আইটি প্রতিষ্ঠানের কাছে আমার কাজগুলোর প্রপোজল পাঠিয়েছি। এর ফলশ্রুতিতে ইসরায়েলের ফাইবাবার মার্কেট প্লেস নামে একটি প্রতিষ্ঠানের সাথে আমি জিআইএফ এ্যানিমেশন নিয়ে কাজ করার সুযোগ লাভ করি।
তিনি জানান, ফ্রি ল্যান্সিংয়ে আমার প্রথম আয় ছিল ১০ ডলার। ইসরায়েলের ঐ প্রতিষ্ঠানের সাথে জিআইএফ এ্যানিমেশন নিয়ে আমার আরো কয়েকটি প্রজেক্ট চলমান রয়েছে।
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের বাস্তবায়নে ১৭ জানুয়ারি থেকে ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রথম ব্যাচ এবং ৪ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত দ্বিতীয় ব্যাচে ৪১ ওয়ার্ডের ৪০ জন নারী উদ্যোক্তাকে গ্রাফিক্স ডিজাইনের উপর প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। আজ প্রশিক্ষন প্রাপ্ত এই ৪০ নারী ফ্রি ল্যান্সিং উদ্যোক্তাকে সনদ পত্র বিতরণ করা হয়েছে।  চসিক সচিব আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা ড. মুস্তাফিজুর রহমান,লক্ষীপুর জেলা এডিসি মঞ্জুরুল ইসলাম, প্রকৌশলী দেলোয়ার মজুমদার, আইটি অফিসার ইকবাল হাসান,প্রশিক্ষক কামরুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।