‘‘বড়ভাই’’ শব্দটি এখন খারাপ অর্থে ব্যবহৃত হচ্ছে।

‘‘বড়ভাই’’ শব্দটি এখন খারাপ অর্থে ব্যবহৃত হচ্ছে।

120
SHARE

নিজস্ব প্রতিনিধি : হাসান মুরাদ:চট্টগ্রাম সিটি কর্পেোরেশন আয়োজিত ২৩নং পাঠানটুলী ওয়ার্ডে মাদক,সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী সচেতনতামূলক সমাবেশে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন প্রজন্ম সমাজের অনৈতিক,অসামাজিক এবং অনিয়ন্ত্রিত জীবনাচরণ আগামী বাংলাদেশের জন্য অশনি সংকেত বলে আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন।সমাবেশে তিনি বলেন, আমাদের যৌবনে আমরা যে শুধু পারিবারিক শাসন-শৃঙ্খলায় বেড়ে উঠেছি তা নয়; পাড়া,মহল্লার শাসন-শৃঙ্খলাও আমাদের নৈতিক জীবনাচরণ গঠনে অন্যতম নিয়ামক হিসেবে কাজ করেছে।আমরা পাড়ার বড়ভাইদেরকে নিজের বড়ভাইয়ের মত শ্রদ্ধা-সম্মান করতাম। তাদেরকে রাস্তার একপাশে দেখলে আমরা সালাম জানিয়ে অপর পাশ দিয়ে হেঁটে যেতাম। মাগরিবের পর ঘরে ফেরা যাবে না।ঘরে ফিরতে ফিরতে যেদিন আযান পড়ে গেছে সেদিন ভয়ে ভয়ে ঘরে ঢুকতাম না জানি কোন গজব আমার উপর নাজিল হয়।
আর এখন দিন বদলে গেছে। আমরা নিজেদেরকে নিয়ে এতটা ব্যস্ত হয়ে পড়েছি যে আপন মা-বাবা,ভাই-বোন দুরের কথা সন্তানেরও খবর নিতে পারি না।পিতা-মাতা দুজনই ব্যস্ত।সন্তানের খোঁজ খবর নেয়ার সময় নেই।আমাদের প্রিয় সন্তান বেড়ে উঠছে ঘোর এক অনিশ্চয়তার ভিতর দিয়ে।
আমাদের সম্মান-শ্রদ্ধা আর ভালবাসা মিশ্রিত সেই “বড়ভাই” শব্দটির অর্থও এখন পাল্টে গেছে।এখন “বড়ভাই” মানে নানা অপরাধ কর্মের আশ্রয়-প্রশ্রয়দাতা।টিনএজ অপরাধীরা এখন বড়ভাইদের মদদে,ইন্ধনে নানা অপকর্ম ,খুন-খারাবি পর্যন্ত করে বেড়াচ্ছে। এখন “বড়ভাই” শব্দটি কানে লাগলে আমরা ভয়ে আঁতকে উঠি,শিহরিত হই।“বড়ভাই” শব্দটি এখন খারাপ অর্থে ব্যবহৃত হচ্ছে।
এ অবস্থা আমাদের জন্য সুখবর নয়।আমরা হয়ত ভাল আছি। কিন্তু আমাদের অসচেতনতায় যে প্রজন্ম বেড়ে উঠছে তাদের হাতে ভবিষ্যৎ অন্ধকার।
কাউন্সিলর জাবেদের সভাপতিত্বে সমাবেশে আইনশৃঙ্খলা কমিটি সভাপতি কাউন্সিলর এইচ এম সোহেল,স্পেশাল সিটি ম্যাজিস্ট্রেট জাহানারা ফেরদৌস,আফিয়া আকতার,মহানগর আওয়ামীলীগের সদস্য হাজি দোস্ত মোহাম্মদ,২৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি হাজি ইদ্রিছ কাজেমী, কেন্দ্রীয় যুবলীগ সাবেক সদস্য আবদুল মান্নান ফেরদৌস, আওয়ামীলীগ নেতা হাজি ইব্রাহীম সহ নানা শ্রেনিপেশাজীবী প্রতিনিধিবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।