কিংবদন্তী অভিনেত্রী নাসরিনের পথচলা।

কিংবদন্তী অভিনেত্রী নাসরিনের পথচলা।

137
SHARE

নিজস্ব প্রতিনিধি : সুমন ভট্টাচার্য: ঢালিউডে ছোটখাট সাইড ক্যারেকটারে অভিনয় দিয়ে যাত্রা শুরু করেছিলেন নাসরিন। এরপর ধীরে ধীরে বড় চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পান। একটা সময় বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রের আইটেম গানে নৃত্যশিল্পী হিসেবে নাসরিনের উপস্থিতি ছিল একচেটিয়া। সময়ের সাথে সাথে চলচ্চিত্রে নাসরিনের ব্যস্ততা কমে আসে।

নাসরিনের গ্রামের বাড়ি বিক্রমপুরে হলেও তার বেড়ে উঠা পুরনো ঢাকায়। নাসরিনের রয়েছে আরও চার বোন এক ভাই। বোনদের মধ্যে নাসরিনই সবার ছোট। তার মা বাবা গত হয়েছেন অনেক আগেই। তাই নাসরিনকে চলচ্চিত্রের দর্শক একজন নৃত্যশিল্পী হিসেবেই বেশি চিনেন। বিশেষত চলচ্চিত্রের কৌতুক সম্রাট দিলদার বেঁচে থাকাকালীন সময়ে তার সঙ্গে নাসরিনে একটি জুটি গড়ে উঠে। কিন্তু দিলদারের মৃত্যুর পর নাসরিন আর সেভাবে ব্যস্ত হতে পারেননি। বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক সোহানুর রহমান সোহানের হাত ধরেই চলচ্চিত্রে নাসরিনের অভিষেক ১৯৯২ সালে। তার প্রথম ছবি ‘লাভ’। এরপর এই পর্যন্ত তিনি প্রায় পাঁচ শ‘র মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন।

নাসরিন অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে আছে। ‘অগ্নিপথ’, ‘মরন কামড়’, ‘ফুলের মতো বউ’, ‘বর্তমান’, ‘কাজের মেয়ে’, ‘বিচার হবে’, ‘শেষ ঠিকানা’ ইত্যাদি। তার অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি সোহানুর রহমান সোহানের ‘এক মন এক প্রাণ’। বর্তমানে তিনি শাহীন সুমনের ‘ভালবাসা অন্ধ’ ছবির কাজ করছেন। সর্বশেষে নাসরিন বলেন কিউ২৪নিউজ ডট কমের সকল পাঠক কলাকুশলী সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন যেন।