সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ-মাদক প্রতিরোধে ওয়ার্ড ভিত্তিক ‘সামাজিক শক্তি কমিটি’ গঠনের পরিকল্পনা।

সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ-মাদক প্রতিরোধে ওয়ার্ড ভিত্তিক ‘সামাজিক শক্তি কমিটি’ গঠনের পরিকল্পনা।

35
SHARE

নিজস্ব প্রতিনিধি : হাসান মুরাদ: ৪ নং মোহরা ওয়ার্ড কার্যালয়ে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন আয়োজিত সন্ত্রাস,জঙ্গিবাদ ও মাদক বিরোধী সমাবেশে সিটি মেয়র বলেছেন,সন্ত্রাস আর মাদক পরস্পর সম্পূরক। একজন মাদকাসক্ত ব্যক্তি তার নেশার টাকা জোগাড়ের জন্য প্রাথমিক ভাবে পরিবার এবং পরবর্তীতে সমাজে নানা অসামাজিক,অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয়ে পড়ে। মাদকের টাকা জোগাড়ের জন্য ঐ ব্যক্তি চুরি,ছিনতাই থেকে শুরু করে যেকোন অপকর্মে জড়িত হয়। মাদকাসক্ত ব্যক্তি আমাদের পরিবার বা সমাজেরই সদস্য। সুতরাং পারিবারিক বা সামাজিক ভাবেই এই সমস্যার সমাধান করা সময়ের দাবী। পাশাপাশি আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তা সন্ত্রাস,জঙ্গিবাদ এবং মাদক দমনে কার্যকর ভূমিকা রেখে যাবে।

তিনি বলেন, এলাকার যেকোন সমস্যা চিহ্নিতকরণ এবং সমাধানের জন্য স্থানীয় ব্যক্তিবর্গের ভূমিকা অনন্য কার্যকর। নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে সন্ত্রাস,জঙ্গিবাদ এবং মাদক সমস্যা নিয়ন্ত্রন ও প্রতিরোধের জন্য আমি ওয়ার্ড ভিত্তিক ‘সামাজিক শক্তি কমিটি’ গঠনের পরিকল্পনা নিচ্ছি। এলাকার জনপ্রতিনিধি,মুরুব্বী,রাজনৈতিক প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে এই কমিটি গঠন করা হবে। কমিটি এলাকার কোথায় কি সমস্যা তা চিহ্নিত করে সার্বজনীন ভাবে তা প্রতিরোধ করবে। কমিটিকে সর্বাত্মক সহায়তা দেবে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এক্ষেত্রে আমার পক্ষ থেকে সার্বিক সহায়তা থাকবে।

আজ বিকেলে মোহরা ওয়ার্ড কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র একথা বলেন। কাউন্সিলর মো. আজমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কাউন্সিলর কফিল উদ্দিন, এইচ এম সোহেল,চসিক স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট জাহানারা ফেরদৌস, নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট আফিয়া আকতার, সিএমপি উত্তর জোন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মিজানুর রহমান প্রমুখ। সভায় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ,প্যানেল মেয়র জোবাইদা নার্গিস খান উপস্থিত ছিলেন।