রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

105
SHARE

কিউ২৪ নিউজ ডেস্ক :রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। আজ বৃহস্পতিবার নির্বাচন ভবনে সংবাদ সম্মেলনে এই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা।

তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া যাবে ৫ ফেব্রুয়ারি। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ৭ ফেব্রুয়ারি। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ১০ ফেব্রুয়ারি। ১০ ফেব্রুয়ারি বিকেল চারটা পর্যন্ত প্রার্থিতা প্রত্যাহার করা যাবে।
মনোনয়নপত্র দাখিল, পরীক্ষা, প্রত্যাহারসহ ভোটের আগের কার্যক্রম হবে নির্বাচন কমিশনে। একাধিক প্রার্থী থাকলে ১৮ ফেব্রুয়ারি বেলা দুইটা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত জাতীয় সংসদে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় সংসদের সদস্যরা নির্বাচনে ভোট দেবেন।

রাষ্ট্রপতি পদে একক প্রার্থী হলে ভোটের প্রয়োজন হবে না। একাধিক প্রার্থী থাকলে ভোট হবে। এ ক্ষেত্রে প্রার্থীরা সমান ভোট পেলে লটারি হবে। নির্বাচন বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত।

সিইসি জানান, এই নির্বাচনে রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থীর প্রস্তাবক ও সমর্থক কেবল জাতীয় সংসদ সদস্যরাই হতে পারবেন। দুজন সংসদ সদস্যের মৃত্যুর কারণে এ নির্বাচনে ভোট দেবেন সংসদের ৩৪৮ জন সদস্য।

বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের মেয়াদ শেষ হবে এ বছরের ২৩ এপ্রিল।

আইন অনুযায়ী, ২৪ জানুয়ারি (বুধবার) থেকে শুরু হবে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ক্ষণগণনা। ওই দিন থেকে পরবর্তী ৩০ দিনের মধ্যে অর্থাৎ ২২ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে হবে।

২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল দায়িত্ব গ্রহণ করে বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তাঁর পাঁচ বছরের মেয়াদ ২৩ এপ্রিল শেষ হবে। আর সংবিধান অনুযায়ী মেয়াদ অবসানে পূর্ববর্তী ৯০ থেকে ৬০ দিনের মধ্যে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এ ব্যাপারে সংবিধানের ১২৩ (১) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘রাষ্ট্রপতি পদের মেয়াদ অবসানের কারণে উক্ত পদ শূন্য হলে মেয়াদ-সমাপ্তির তারিখের পূর্ববর্তী ৯০ হতে ৬০ দিনের মধ্যে শূন্য পদ পূরণের জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হইবে।’