রোবট রেস্টুরেন্ট’ কার্যক্রম শুরু হয়েছে ঢাকায়।

রোবট রেস্টুরেন্ট’ কার্যক্রম শুরু হয়েছে ঢাকায়।

68
SHARE

কিউ২৪ নিউজ ডেস্ক : রোবট রেস্টুরেন্ট’। নাম শুনলেই মনে আসে উন্নতপ্রযুক্তিসম্পন্ন দেশগুলোর কথা। ইউটিউব বা টিভির পর্দায় দেখা সেই রোবট রেস্টুরেন্টের খাবারের স্বাদ নেয়ার বিষয়টি অনেকের কাছেই স্বপ্নের মতো। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে এ বিষয়টি এখন আর স্বপ্নের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। বাস্তবে ঢাকাতেই শুরু হয়েছে ‘রোবট রেস্টুরেন্টের’ কার্যক্রম।

গত ১৫ই নভেম্বর রাজধানীর আসাদগেটের নিকটস্থ ফ্যামিলি ওয়ার্ল্ড কনভেনশন সেন্টারের দ্বিতীয় তলায় এই রেস্তোরাঁয় চাইলে নেওয়া যাবে রোবটের সেবা।

রোবট দুটির নির্মাতা প্রকৌশলী ম্যাক্স সোয়া ও স্টিভেন শেনের কাছ থেকে জানা যায়, এর প্রতিটির ওজন ৩০ কিলোগ্রাম। উচ্চতা ১ দশমিক ৬ মিটার। প্রতিটি রোবট একনাগাড়ে ১৮ ঘণ্টা কাজ করতে সক্ষম। প্রতিটি রোবট বানাতে খরচ হয়েছে প্রায় আট লাখ টাকা।

দুই চীনা প্রকৌশলীর উপলব্ধি, বাংলাদেশ যে এখন তথ্যপ্রযুক্তিতেও উন্নতির পথে রয়েছে, খাবার পরিবেশনে রোবটের ব্যবহার এর একটি উদাহরণ। ধীরে ধীরে অন্যান্য ক্ষেত্রেও রোবটের ব্যবহার বাড়বে বলে তাঁদের আশা।

রোবট দুটি ক্রেতাদের কাছ থেকে কোনো ফরমাশ নেবে না। কেবল রান্নাঘর থেকে তৈরি করা খাবার নির্দিষ্ট টেবিলে পৌঁছে দেবে। রোবটরা চলাচল করবে নির্দিষ্ট লাইন (ট্র্যাক) ধরে। সামনে বাধা পড়লে তারা স্বয়ংক্রিয়ভাবে থেমে যাবে। ইংরেজিতে অনুরোধ করবে পথ ছেড়ে দেবার জন্য।

রোবট রেস্টুরেন্টের ব্যবস্থাপক তানভীরুল হক বলেন, ৪টি সেট মেনু এখন পর্যন্ত পরিবেশন করা হচ্ছে। প্রতিটি প্যাকেজের মূল্য রাখা হচ্ছে ৫শ’ টাকা করে। তবে খুব দ্রুত আরও বিভিন্ন মেনু সংযুক্ত করা হবে বলে জানান তিনি।

রোবট দেখে দারুণ উচ্ছ্বসিত রেস্টুরেন্টে আসা শিশুরা। খাবারের চেয়ে রোবটের সঙ্গে সেলফি তোলা, খেলাধুলা ও দুষ্টুমিতে মেতে উঠতেই বেশি ব্যস্ত তারা।