বৈদ্যুতিক গাড়ি শেয়ারিং সেবা চালু সিঙ্গাপুরে

বৈদ্যুতিক গাড়ি শেয়ারিং সেবা চালু সিঙ্গাপুরে

96
SHARE

মঙ্গলবার বড় পরিসরে নিজেদের প্রথম বৈদ্যুতিক গাড়ি শেয়ারিং প্লাটফর্ম চালু করেছে সিঙ্গাপুর।

এর মাধ্যমে যাত্রীদের জন্য পরিবহন সেবা বাড়ানো ও তাদের নিজস্ব গাড়ি কেনার প্রয়োজনীয়তা দূর করার আশা করছে দেশটি, বলা হয়েছে রয়টার্স-এর প্রতিবেদনে।

ফ্রান্স-এর বোলোরে গ্রুপ-এর অধীনস্থ ব্লুএসজি বিভাগ এক দশক ধরে এই সেবা পরিচালনা করবে। রাস্তায় গাড়ির সংখ্যা কমানো আর গণপরিবহন ব্যবহারে নাগরিকদের উৎসাহ দিতে সিঙ্গাপুরের নেওয়া পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

গাড়ির মালিক হওয়ার ক্ষেত্রে সবচেয়ে ব্যবয়বহুল দেশটি চলতি বছর অক্টোবরে বলে, তারা সামনের বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে মোট গাড়ির সংখ্যা আর বাড়তে দেবে না। এক্ষেত্রে নিজেদের ভূমি সংকটের কথা উল্লেখ করে গণপরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়নে জোর দেওয়ার কথা জানায় দেশটি।

‘সুন্দরভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করা রাস্তাঘাট আর অপেক্ষাকৃত বাধাহীন যান চলাচল ব্যবস্থার’ দেশটি ইতোমধ্যে কয়েকটি স্বচালিত গাড়ি প্রযুক্তি নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছে- বলা হয় প্রতিবেদনটিতে।

বোলোরে ফ্রান্সের প্যারিস ও লিওন, যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলস আর ইন্ডিয়ানাপোলিস আর ইতালির তুরিনসহ বিভিন্ন শহরেও একই ধরনের বৈদ্যুতিক গাড়ি শেয়ারিং সেবা পরিচালনা করছে। জনসাধারণের জন্য ব্যবহারের জন্য প্রতিষ্ঠানটির অধীনে ইতোমধ্যে প্রায় ৮০টি গাড়ি ও ৩২টি চার্জিং স্টেশন রয়েছে বলে মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানায় ব্লুএসজি।

প্রতিষ্ঠানটির লক্ষ্য ২০২০ সালের মধ্যে এক হাজার গাড়ির বহর আনা আর দুই হাজার চার্জিং পয়েন্ট বানানো। ব্লুএসজি’র পক্ষ থেকে বলা হয়, সিঙ্গাপুরের এই সেবা প্যারিসের পর বিশ্বের সবচেয়ে বড় বৈদ্যুতিক গাড়ি শেয়ারিং প্লাটফর্মে পরিণত হবে।

এই প্রকল্পে ঠিক কী পরিমাণ অর্থ খরচ হচ্ছে তা নিয়ে কোনো অংক বিবৃতিতে প্রকাশ করা হয়নি। সিঙ্গাপুরের সরকার এই প্রকল্পের অবকাঠামো নির্মাণে কিছু অর্থ দেবে।

ব্লুএসজি’র গাড়িগুলো দুই দরজার আর এতে চারজন মানুষ উঠতে পারেন। এ গাড়িগুলো লিথিয়াম-ধাতব পলিমার ব্যাটারি দিয়ে চলে যা একবার পুরো চার্জ দিলে দুইশ’ কিলোমিটার পর্যন্ত চলতে সক্ষম।

এই সেবা পেতে ব্যবহারকারীরা দুটি ফিচারের মধ্যে যে কোনো একটির গ্রাহক হতে পারেন। একটি ফিচারে বার্ষিক গ্রাহকদের জন্য প্রতি মিনিটে ০.৩৩ সিঙ্গাপুরি ডলার আর অন্যটিতে মিনিটে ০.৫০ সিঙ্গাপুরি ডলার গুণতে হবে ব্যবহারকারীদের।

ইতোমধ্যে এই সেবার জন্য দুই হাজার মানুষ নিবন্ধন করেছেন বলে জানিয়েছে ব্লুএসজি।